ডিজিটাল অর্থনীতি ও তথ্যপ্রযুক্তিগত দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়া

4 September, 2022

Reading Time: 1 Minute

ডিজিটাল অর্থনীতি, তথ্যপ্রযুক্তিগত দক্ষতা উন্নয়নে বিনিয়োগ ও পর্যটন খাতের বিকাশে বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার সরকার ভবিষ্যতে একসাথে আরো নিবিড়ভাবে কাজ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এমপি। ওয়ার্ল্ড ইসলামিক ইকোনমিক ফোরামের চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ হামিদ আলবার এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত মালয়েশিয়ার হাইকমিশনার হাজনাহ মো. হাসিম-এর সাথে বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওস্থ আইসিটি টাওয়ারে এক সৌজন্য সাক্ষাতে এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।

 

উদ্ভাবন ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ে আগামী দিনে ভ্রাতৃপ্রতীম দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ক আরো জোরদার করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল অর্থনীতির উন্নয়নে এবং স্মার্ট বাংলাদেশ ভিশন-২০৪১ অর্জনের লক্ষ্যে দেশীয় আইসিটি খাতের জন্য চতুর্থ শিল্পবিপ্লব উপযোগী কৌশল ও কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তি ও কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরিতে কাজ চলমান রয়েছে। বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিশেষ করে স্টার্টআপ, ই-কমার্স এবং ফ্রিল্যান্সিং খাতে বিভিন্ন উদ্ভাবনী উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। 

 

ডিজিটাল অর্থনীতিতে প্রান্তিক পর্যায়ের জনগণের অর্ন্তভূক্তিমুলক অংশ নিশ্চিতে সারাদেশে ছড়িয়ে থাকা ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তাদের বিশেষ করে নারী উদ্যোক্তাদের মাধ্যমে বিভিন্ন উদ্ভাবনী উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এসব উদ্যোক্তাদের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই), রোবোটিক্স, ন্যানোটেকনোলজি এবং সাইবার নিরাপত্তাসহ অন্যান্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তিগত সক্ষমতা উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের সাথে ওয়ার্ল্ড ইসলামিক ইকোনমিক ফোরাম ও মালয়েশিয়া সরকার অংশীদারীত্বের ভিত্তিতে কাজ করার জন্য এগিয়ে আসতে পারে। 

 

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে অর্জিত অভূতপূর্ব অগ্রগতি ও সাফল্যের প্রশংসা করে ওয়ার্ল্ড ইসলামিক ইকোনমিক ফোরামের চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ হামিদ আলবার বলেন, তরুণ-তরুণীদের মধ্যে আইসিটি বিষয়ক দক্ষতার উন্নয়ন ও ডিজিটাল উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে অর্জিত জ্ঞান বিনিময়ে ভ্রাতৃপ্রতীম দুই দেশ একসাথে কাজ করতে পারে। পর্যটন, শিক্ষা এবং সম্ভাবনাময় অন্যান্য ক্ষেত্রে সহযোগিতামূলক সুযোগ তৈরিতে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আসন্ন আন্তর্জাতিক সম্মেলনে বাংলাদেশকে অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ জানান তিনি। 

 

আইসিটি বিভাগের মাননীয় প্রতিমন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে মালয়েশিয়ার প্রতিনিধি দল আইসিটি টাওয়ারে অবস্থিত এটুআই কার্যালয় পরিদর্শন করেন। এসময় প্রতিনিধি দলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দকে স্বাগত জানান এটুআই এর প্রকল্প পরিচালক (যুগ্মসচিব) ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর এবং শুভেচ্ছা স্মারক হিসেবে ‘দ্য এটুআই জার্নি’ এবং ‘আমার ডিজিটাল বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রকাশনা হস্তান্তর করেন। 

 

এসময় পারস্পরিক সুবিধা, সম্পর্ক উন্নয়ন এবং অভিজ্ঞতা বিনিময়ে ভবিষ্যতে বিভিন্ন উদ্ভাবন প্রদর্শনীর আয়োজন এবং অর্জিত জ্ঞান বিনিময়ে বিভিন্ন কর্মশালা এবং ওয়েবিনার আয়োজনে ওয়ার্ল্ড ইসলামিক ইকোনমিক ফোরাম ও এটুআই সম্মতি প্রকাশ করেছেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন এটুআই-এর পলিসি অ্যাডভাইজর জনাব আনীর চৌধুরী, সোশ্যাল ইনোভেশন ক্লাস্টার প্রধান জনাব মানিক মাহমুদ, ইন্টারন্যাশনাল কমিউনিকেশনস অ্যাডভাইজর জনাব আশফাক জামান এবং এটুআই ও ডব্লিউআইইএফ-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


RELATED POSTS